SEO Tips

ব্যাকলিঙ্ক কি এবং ব্যাকলিঙ্ক কিভাবে কাজ জানুন।

সম্মানিত ভিজিটর,কেমন আছেন আপনারা? আশা করি সবাই মোটামোটি ভাবে ভালো আছেন আপনাকে আপনার প্রিয় ব্লগে স্বাগতম, তো বর্তমানে গুগলে ২০০ এর অধিক র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর রয়েছে,গুগল ফাষ্ট পেজে আসতে হলে বেষ্ট র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর কি হতে পারে?? 
আজকের এই নিবন্ধিত পোষ্ট টি হয়ত আপনাকে সাহায্য করতে পারবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য। তাই ব্লগ বা ওয়েব সাইট কে টপ এ নিতে হলে ব্যাকলিঙ্ক করার কোন জুড়ি নেই। তাই যেকোন সমস্যা এবং প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কম্মেন্ট সেকশন থেকে প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারেন।
red notebook and smartphone beside computer laptop 3774023

মজ(MOZ) একটি প্রতিষ্ঠান পৃথিবীর সব টপ Popular এসওই এক্সপার্টদের ইন্টারভিউ নিয়ে ছিলো ,এবং সেখানে প্রায় বেশীর ভাগ এসওই এক্সপার্ট রাই দাবি করে ছিলো সেটি হলো ‘ব্যাকলিঙ্ক’,এবার নিচে ধারাবাহিক ভাবে জেনে নেই ব্যাকলিঙ্ক কি এবং কিভাবে এটি কাজ করে,এবং কি কি বিষয় নিয়ে ব্যাকলিঙ্ক কাজ করে।

ব্যাকলিঙ্ক কি এবং এটি কিভাবে কাজ করেঃ

ব্যাকলিঙ্ক কি (What is Backlink):

backlinks

সোজাভাবে বলতে গেলে ব্যাকলিঙ্ক হচ্ছে নিজের ওয়েবসাইটের সাথে অন্যসব ওয়েবসাইটের সাথে কানেক্টশন করা। এর মানে যখন কোন ভিজিটর ওইসব ব্লগ বা ফোরাম বা ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পড়ছেন বা দেখতেছেন,সেখান কোন লিঙ্ক এড করে দিলে সেটায় ক্লিক করলে আপনার অর্থাৎ নিজের ওয়েবসাইট বা ব্লগে রিডিরেক্ট করে নিয়ে আসে অই ভিজিটর কে। সেটাই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ব্যাকলিঙ্ক।

ব্যাকলিঙ্ক কিভাবে কাজ করেঃ

অর্থাৎ যে সকল ওয়েবসাইটের ব্যাকলিঙ্ক যত বেশি হয় সে ওয়েবসাইট গুলি গুগলে তত দ্রুত র‍্যাংকিং করবে, তো একটা ওয়েবসাইটের ব্যাকলিঙ্ক যদি ৫০০ বা ১০০০ হয় এবং অন্য ওয়েবসাইটের ব্যাকলিঙ্ক এর চেয়ে কম হয় বা ২০০ হয় তাহলে সেটা সংক্রিয় ভাবে অই ৫০০ ব্যাকলিঙ্ক এর ওয়েবসাইট টি গুগল সার্চ ইঞ্জিনের কাছে বেশি পাওয়ারফুল হিসাবে গুগল কাউন্ট করে। এবার ধরে নিন আপনার ওয়েবসাইটের খুব কম সংখ্যক ব্যাকলিঙ্ক আছে এবার আপনি তাই ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করার জন্য লিঙ্ক-বিল্ড ক্যাম্প করে যাচ্ছেন,কিন্তু গুগল এটা চেক করে দেখে যে আপনি কত টুকু সময়ের মধ্যে এবং সময় নিয়ে ব্যাকলিঙ্ক করছেন।
এবার ধরে নিন আপনি ১ দিন এ প্রায় ৪০ টা লিঙ্ক বানিয়ে ফেলেছেন কিন্তু বাস্তবিক পক্ষে এটা কোন ভাবেই কখনোই ইফেক্টিভ বা সফল লিঙ্ক বি-বিল্ডিং ক্যাম্পিং নয়,এটা কোন ন্যাচারাল লিঙ্ক বিল্ডিং নয়। গুগল এটাই চেক করে দেখে আপনি Over the time এর মধ্যে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করে ফেলেছেন,সুতরাং আপনি যদি ৩০ দিন বা ১ মাস সময় নিয়ে ৪০ টা ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করে ফেলেন সেটা বেশি কার্যকরী,যদি আপনি ১ দিনে ৪০ টা ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করেন সেটা বেশি কার্যকর হয়ে ওঠে না গুগলের কাছে।
এবার আরেক টি বিষয় মাথায় রাখতে হবে যে সেটি হচ্ছে সম্পর্কযুক্ত ওয়েবসাইট।


সম্পর্কযুক্ত ওয়েবসাইট (Related Website):


ধরে নিন আপনার একটি রেষ্টোরা আছে এবার আপনি যদি সেই রেষ্টুরেন্টের ওয়েবসাইট থেকে প্রথম আলো বা বাংলা ট্রিবিউন এসব পত্রিকার ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিঙ্ক পেয়ে যান তাহলে সেটা আপনার ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে গুগল র‍্যাংকিং এ বেশি কার্যকরি লিঙ্ক হিসাবে ভূমিকা রাখে। কারন এটিকে বাংলাদেশের অনলাইন পোর্টালের জন্য বেষ্ট ওয়েবসাইট বলা চলে এবং এই ওয়েবসাইট থেকে মূলত ব্যাকলিঙ্ক পাওয়া খুব কষ্ট কর। তাই আপনি যদি প্রথম আলো বা বাংলা ট্রিবিউন সহ যেকোন টপ র‍্যাঙ্কিং এর ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিঙ্ক পান সেটি আপনার ওয়েবসাইট বা যেকোন ধরনের ওয়েবসাইটের জন্য বেশি শক্তশালী একটি বিষয় বলা চলে,এবং আপনি যদি আমার ওয়েবসাইটে ব্যাকলিঙ্ক পান বা তৈরি করেন সেটা তেমন একটা কাজে লাগবে না আপনার এর কারন আমার ওয়েবসাইট অত টা বেশি পপুলার না।
এখন আপনি যদি আপনার রেষ্টুরেন্ট এর ওয়েবসাইট টি থেকে ফুডপান্ডা বা অন্যান্য টপ র‍্যাঙ্কিং এ থাকা ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিঙ্ক পান তাহলে সেটি প্রথম আলো বা বাংলা ট্রিবিউন থেকেও বেশি কার্যকরী হবে এবং সেটি আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের জন্য একবারে লিডিং ওয়েবসাইট বলা যায়,সুতারং ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করার ক্ষেত্রে একটি বিষয় মাথায় রাখা জরুরী সেটা হচ্ছে উক্ত ডোমেইন টি যেনো হাই কোয়ালিটি ওয়েব ডোমেইন এবং টপ লেভেলের ডোমেইন এবং আপনার ব্যাক্তিগত ব্লগ বা প্রতিষ্ঠান এর বেষ্ট তাদের থেকেও বেশি হয়ে থাকে।আপনার যারা প্রতিষ্ঠানে যারা আছে যারা ফুডপান্ডার সাথে সম্পর্কযুক্ত এছাড়া রেষ্টুরেন্ট বা খাবার এর প্রতিষ্ঠান এর ব্যাকলিঙ্ক পান সেটা আপনাকে অনেক বেশি সাহায্য করবে আপনাকে গুগলের প্রথম পেজে আসার ক্ষেত্রে।
আরেকটি বিষয় আপনাকে খেয়াল করতে হবে এখানে সেটি হচ্ছে ডোমেইন অথোরিটি।

ডোমেইন অথোরিটি ( Domain Authority):

সবশেষে ডোমেইন অথোরিটি এর কথা মাথায় রেখেই আপনাকে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে হবে আপনাকে, আর এই ডোমেইন অথোরিটি হচ্ছে ১ থেকে ১০০।
একটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন অথোরিটি যদি ১০০ থাক তবে সেটি শুধু ব্লগ বা ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে কার্যকরী না অনেক বেশি কার্যকরী পাওয়ারফুল ব্যাকলিঙ্ক, আপনি যদি কোন পাওয়ারফুল ওয়েবসাইট গুলি থেকে ব্যাকলিঙ্ক নিতে পারেন তবে সেটি আপনাকে গুগলের প্রথম পেজে খুব তারাতারি নিয়ে আসবে এবং খুব ফাস্ট গুগলের র‍্যাঙ্কিং এ নিয়ে আসবে আপনাকে।এই ডোমেইন অথোরিটি ১০০ থাকে মূলত ফেসবুক ইউটিউব এবং অন্যান্য বড় বড় ওয়েব সার্চ ইঞ্জিন বা লিংকেডিন এর মত ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে , সুতরাং আপনি যখন ব্লগ বা সাইটের জন্য ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করেন তখন চেষ্টা থাকবে আপনি যেন হাই ডোমেইনের অথোরিটি গুলো থেকে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে পারেন,আর যদি আপনি ডোমেইন অথোরিটি কত তা দেখতে চান তাহলে আপনার জন্য বেষ্ট টুল হলো Ahrefs.com ,যদিও এটি একটি পেইড টুল তবে আপনি চাইলে যেকোন ফ্রি ভার্ষনের টুল ব্যবহার করতে পারেন এবং এ ক্ষেত্রে আপনি (Open site explorer) লিখে গুগলে সার্চ করলে সেখান থেকে আপনি (MOZ) নামের ওয়েবসাইটে গিয়ে সরাসরি যেকোন ওয়েবসাইট বা আপনার সাইটের বা যেকোন যে ওয়েবসাইটে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে চান তার ডোমেইন অথোরিটি চেক করে নিবেন। যদি দেখতে পান এটি হাই ডোমেইন অথোরিটি এবং আপনি সেখানে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করে নিতে পারেন। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগার কে খুব তারাতারি গুগলে র‍্যাঙ্ক করে নিতে পারবেন।

পরিশেষে এটাই আপনাকে সাজেষ্ট করবো যে যখন আপনি সাইটের ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করবেন তখন এই ৩ টি জিনিস মাথায় রাখার চেষ্টা করবেন এবং সেটা হচ্ছে অনেক বেশি ব্যাকলিঙ্ক বানাবেন এবং সেটা এক দুইদিন এ নয় সেটা টাইম নিয়ে করতে থাকবেন এবং আরেক টি হচ্ছে রিলেটেড বা সম্পর্কযুক্ত ওয়েবসাইট, আপনি যদি রেষ্টুরেন্ট বা নিউজ পোর্টাল নিয়ে কাজ করেন তাহলে আপনাকে অই সকল সম্পর্ক যুক্ত ওয়েবসাইট এ ব্যাকলিঙ্ক করার চেষ্টা করবেন এবং সবশেষে ডোমেইন অথোরিটি দেখে,অবশ্যই চেষ্টা করবেন বড় যেকোন প্রফেশনাল সাইট থেকে ব্যাকলিঙ্ক নিতে যাদের ডোমেইন অথোরিটি বেশি।
আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন কিভাবে আপনি আপনার ওয়েবসাইট কে খুব তারাতারি র‍্যাঙ্ক করাবেন। কারন এর থেকেই আপনার ওয়েবসাইটের ভ্যালু এবং ভিজিটর দের আকৃষ্ট হবার প্রবনতা বৃদ্ধি পায়।
যদি কোন বুঝতে সমস্যা হয়ে থাকে তবে অবশ্যই এখানে কম্মেন্ট করে আপনি আমাদের জানাবেন আপনার,নিচের কম্মেন্ট বক্সে,আপনাকে যথাযথ চেষ্টা করতে সাহায্য করবো।

Sabyasachi Dewery

Author | Blogger | Digital Marketing Influencer | Tech Researcher At www.sdewery.me

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button